বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১১:৩৭ অপরাহ্ন

আজ দুই সিটিতে ভোট, আগ্রহ কম ভোটারদের

আজ দুই সিটিতে ভোট, আগ্রহ কম ভোটারদের

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটিতে আজ বৃহস্পতিবার সকাল হলেই ভোট অনুষ্ঠিত হবে। সকাল আটটা থেকে বিকাল চারটা পর্যন্ত একটানা ভোট নেওয়া হবে। উত্তর সিটির মেয়র পদে উপ-নির্বাচন, নতুন ১৮টি ওয়ার্ডের সাধারণ নির্বাচন, দুইটি ওয়ার্ডে উপ-নির্বাচন এবং দক্ষিণ সিটির নতুন ১৮টি ওয়ার্ডের সাধারণ নির্বাচনের জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। বিজয়ীরা নির্বাচিত হবেন এক বছরের জন্য। এই ভোটকে কেন্দ্র করে রাজধানীর দুই সিটিতে সাধারণ ভোটারদের আগ্রহ নেই বললেই চলে। দলীয় প্রতীকে প্রার্থী হওয়ার সুযোগ থাকলেও এ নির্বাচনে অধিকাংশ নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল প্রার্থী না দেওয়ায় নির্বাচনী প্রচারে কোনো উত্তাপ ছিল না। তবে নির্বাচন উপলক্ষে আজ দুই সিটির পুরো অংশেই সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। নির্বাচনে এলাকায় সব ধরনের যন্ত্রচালিত বাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

গত দুদিন ধরেই ভোটের তুলনায় ছুটি ও যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি নিয়েই সাধারণ মানুষের মধ্যে প্রায় সর্বত্র আলোচনা-সমালোচনা চলছে। কারও কারও মতে ‘প্রতিদ্বন্দ্বিতাবিহীন’ এ নির্বাচনে ভোটারদের কেন্দ্রে যাওয়ার আগ্রহ কম। গত দু’দিনের মতোই আজও রাজধানীতে বৃষ্টি হলে ভোটার উপস্থিতির আশা নেই বললেই চলে। এমন পরিস্থিতিতে দুই সিটির পুরো অংশে যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়ায় সাধারণ মানুষ দুর্ভোগের শিকার হবে। ইতোমধ্যে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) নির্বাচন উপলক্ষে সকল ধরনের যান চলাচল বন্ধের নির্দেশনা দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। তবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা জানিয়েছেন, প্রধান প্রধান সড়কে বাস চলাচলের ওপর কোনো নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়নি। পরীক্ষার্থীরা প্রবেশপত্র দেখিয়ে প্রাইভেট কার ব্যবহার করতে পারলেও অহেতুক ঘোরাফেরার জন্য এ যান ব্যবহার করা যাবে না।

বুধবার বিকালে ইসির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সিইসি বলেন, ঢাকা শহরে অনেক এমার্জেন্সি বিষয় আছে। এয়ারপোর্টে একজন যাত্রী যাবে, তারজন্য কি বন্ধ থাকবে, অ্যাম্বুলেন্স যাবে, এক্সপোর্ট-ইমপোর্টের জিনিসগুলো যাবে, এরকম জিনিসগুলো বিবেচনা করে পুলিশকে নির্দেশনা দেওয়া আছে, যাতে এভাবে নিয়ন্ত্রিত হয়। ব্যাপকভাবে সব বন্ধ করে দেওয়া হয়নি। বাস চলতে পারবে কি না— এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মেইন রোডে চলবে।

আরও পড়ুন: এবার ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে পাকিস্তানের বিমান হামলা

ইসির যুগ্ম সচিব (জনসংযোগ) এস এম আসাদুজ্জামান আরজু জানান, দক্ষিণ সিটির আংশিক এলাকায় নির্বাচন হলেও উত্তর সিটির মতো দক্ষিণ সিটি পুরো এলাকায় ২৭ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাত থেকে ২৪ ঘণ্টা যন্ত্রচালিত যানচলাচলে নিষেধাজ্ঞা থাকবে। এর আগে গত মঙ্গলবার মধ্যরাত থেকে ১ মার্চ মধ্যরাত পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। তবে নির্বাচন কমিশনের এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি এলাকার মহাসড়ক, আন্তঃজেলা বা মহানগর থেকে বের হওয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ সড়ক এবং প্রধান প্রধান রাস্তার সংযোগ সড়কে যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা শিথিল থাকবে। এ ছাড়াও কতিপয় জরুরি কাজ যেমন— অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, বিদ্যুত্, গ্যাস, ডাক ও টেলিযোগাযোগ ইত্যাদি কার্যক্রমে ব্যবহারের জন্য যানবাহন চলাচল নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবে। ইসির অনুমতি সাপেক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী, তাদের নির্বাচনী এজেন্ট, দেশি-বিদেশি পর্যবেক্ষক ও সাংবাদিক, নির্বাচনের কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা-কর্মচারী, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, নির্বাচনের বৈধ পরিদর্শকের ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য হবে না। দুই সিটিতে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হলেও দেশজুড়ে চলমান এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রের সংশ্লিষ্টরা সাধারণ ছুটির বাইরে থাকবে।

দয়া করে সংবাদটি শেয়ার করুন

© ২০১8-২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত জন সংবাদ | সহযোগিতায় ক্লাইম্যাক্স আইটি নেট |
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি