রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ০৪:০৬ অপরাহ্ন

রেজা কিবরিয়াকে নিয়ে শেখ হাসিনার দুঃখ

রেজা কিবরিয়াকে নিয়ে শেখ হাসিনার দুঃখ

আওয়ামী লীগ সরকারের অর্থমন্ত্রী শাহ আ স ম কিবরিয়ার ছেলে রেজা কিবরিয়ার ধানের শীষে ভোট করাকে দুঃখজনক বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বলেছেন, এটি খুবই লজ্জার বিষয়।

শনিবার সিলেটের আলীয়া মাদ্রাসা মাঠে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় এ কথা বলেন দলটির প্রধান। সমাবেশে বৃহত্তর সিলেটে নৌকা মার্কা এবং মহাজোটে সব প্রার্থীকে পরিচয় করিয়ে দিয়ে ভোট চান প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী যাদেরকে পরিচয় করিয়ে দেন তাদের মধ্যে আছেন হবিগঞ্জ-১ আসনের দেওয়ান শাহনেওয়াজ মিলাদ গাজী। তিনি প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা দেওয়ান ফরিদ গাজীর ছেলে।

মিলাদের মোকাবেলায় বিএনপি নিজের দলের প্রার্থী না দিয়ে গণফোরামে যোগ দেওয়া রেজা কিবরিয়াকে প্রার্থী করেছে। ২০০৫ সালে বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় থাকাকালে রেজার বাবা কিবরিয়াকে গ্রেনেড হামলায় হত্যা করা হয়। হামলার পর গুরুতর আহত কিবরিয়াকে ঢাকায় আনতে হেলিকপ্টার চেয়েও পাওয়া যায়নি।

সে সময় কিবরিয়ার স্ত্রী আসমা কিবরিয়া শান্তির পক্ষে নীলিমা নামে এক কর্মসূচি নিয়ে মাঠে নামেন। তিনি এই হত্যার জন্য বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারকে দায়ী করেন।

এই হত্যার বিচার এখনো চলছে এবং আসামিদের মধ্যে জঙ্গি সংগঠন হরকাতুল জিহাদের নেতা-কর্মী ছাড়াও আছেন বিএনপি সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরসহ দলের বেশ কয়েকজন নেতা। বাবরের স্ত্রী তাহমিনা জামানকে নেত্রকোণা-৪ আসনে মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি। আবার রেজা কিবরিয়ার পাশে নির্বাচনী প্রচার চালিয়েছেন এই হত্যা মামলার আসামি সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীও।

রেজা কিবরিয়া গণফোরামে যোগ দেওয়ার সময় তার বাবা হত্যার বিচার না হওয়ার আক্ষেপের কথা বলেছিলেন। কিন্তু সেই বিএনপির প্রতীকে নির্বাচন করায় রেজাকে নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘অত্যন্ত দুঃখের বিষয়, পিতার হত্যাকারী, ওই ধানের শীষ। বিএনপি কিবরিয়া সাহেবকে হত্যা করেছে। আর কিবরিয়া সাহেবের ছেলে, অত্যন্ত পরিতাপের বিসয় হলো, সে ওই বিএনপির ধানের শীষ নিয়ে ইলেকশন করে। এ থেকে লজ্জার আর কিছু থাকে না। আপনারা শাহনেওয়াজ মিলাদ গাজীকে হবিগঞ্জ-১ আসনে ভোট দিন।’

হবিগঞ্জ-২ আসনে আবদুল মজিদ খানকে পরিচয় করিয়ে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘তিনি কিবরিয়া হত্যার ঘটনায় মামলা করে এই কাজ যে বিএনপি করেছে সেটা প্রমাণ করেছেন।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘এই নির্বাচনে আমরা নৌকা মার্কায় ভোট চাই। কারণ নৌকা মানে উন্নয়ন। ধানের শীষ মানে দুর্নীতি, সন্ত্রাস, লুটপাট, জঙ্গিবাদ, অগ্নিসন্ত্রাস। তারা স্বাধীনতাবিরোধী, যুদ্ধাপরাধীদের নমিনেশন দিয়েছে।

‘যে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করে আমরা শাস্তি দিয়েছি। তাদেরকে নিয়ে নির্বাচনে অংশীদার হয়েছে। তারা দেশের ক্ষমতায় আসা মানে দেশকে ধ্বংস করবে। সকল অর্জন নস্যাৎ করবে, কারণ এরা স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না।

দয়া করে সংবাদটি শেয়ার করুন

© ২০১8-২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত জন সংবাদ | সহযোগিতায় ক্লাইম্যাক্স আইটি নেট |
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি