সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ০৩:২০ অপরাহ্ন

রাতে ফেসবুক বন্ধ চান রওশন

রাতে ফেসবুক বন্ধ চান রওশন

রাত ১১টার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক বন্ধ করে দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ।

সরকারের উদ্দেশে রওশন এরশাদ বলেন, ‘ছাত্রদের হাতে স্মার্টফোন তুলে দেওয়া আর কোকেন তুলে দেওয়া একই কথা।তারা সারারাত জেগে ফেসবুক দেখে আসক্ত হয়ে পড়ছে। তাই রাত ১১টার পর ফেসবুক বন্ধ করে দিলে তারা পড়াশোনায় মনোযোগী হবে। ’

আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদের ২২তম অধিবেশনের সমাপনী দিনে দেওয়া বক্তব্যে রওশন এরশাদ সরকারের কাছে এই অনুরোধ জানান।

রওশন এরশাদ প্রশ্ন করে বলেন, বেকারদের কর্মসংস্থান করতে না পারলে সোনার বাংলা কীভাবে হবে? সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে তরুণদের দায়িত্ব নিতে হবে। তাদের গড়ে তুলতে হবে। সেজন্য বাজেটে আলাদা বরাদ্দ রাখতে হবে।তাদের প্রশিক্ষিত করে বিদেশে পাঠাতে পারলে দেশের উন্নয়ন হবে।

সরকারি চাকরিতে কোটা সমস্যার সুষ্ঠু ও স্থায়ী সমাধানে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি অনুরোধ জানান রওশন এরশাদ। তিনি বলেন, ‘ছেলেরা কোটা সংস্কারের আন্দোলন করছে।এটা করতে গিয়ে তারা হয়রানির শিকার হচ্ছে। কিন্তু সংঘাতের মাধ্যমে কোনোকিছুর সমাধান হয়না। কোটা সংস্কারের নামে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে যে ভাঙচুর হয়েছে সেটাকে আমরা সমর্থন করিনা। তাই আলাপ–আলোচনা করেএর সমাধান হলে সেটা ভাল।’

মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সরকারি চাকরিতে কোটা রাখা সম্ভব না হলে অন্যভাবে সুযোগ–সুবিধা রাখার আহ্বান জানিয়ে বিরোধী দলীয় নেতা বলেন, ‘মুক্তিযোদ্ধাদের কোটা হয়ত রাখতে হবে। কারণ তারা আমাদের স্বাধীনতার জন্য অনেক ত্যাগ শিকার করেছেন। তাদের জন্য কোটা না রাখা গেলে অন্যভাবে সুযোগ–সুবিধা রাখা যেতে পারে।’

রওশন এরশাদ ভারত ও ফ্রান্সসহ বিশ্বের আরও একাধিক দেশের উদাহরণ টেনে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়ানোর পক্ষে মত দেন। তিনি বলেন,ছাত্রদের দাবি যৌক্তিক।সুতরাং ছেলেদের দাবি বিবেচনা করা যেতে পারে।

দয়া করে সংবাদটি শেয়ার করুন

© ২০১8 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত জন সংবাদ | কারিগরি সহযোগিতায় ক্লাইম্যাক্স আইটি নেট |
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি