বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:৫৫ অপরাহ্ন

১৫ প্রতিষ্ঠানের চাকরি পরীক্ষা একদিনে, বিপাকে চাকরিপ্রার্থীরা

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট সময় : শনিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২২
  • ২৪ বার দেখা হয়েছে

কোনো প্রকার সমন্বয় ছাড়াই শুক্রবার (২১ অক্টোবর) সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, ইনস্টিটিউট, অধিদপ্তর ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চাকরির পরীক্ষার সময়সূচি নির্ধারণ করেছেন। যাতে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন কেন্দ্রে প্রায় ১০ লাখ চাকরিপ্রার্থী তারা ১৫টি প্রতিষ্ঠানের চাকরির পরীক্ষায় অংশ নেবেন তারা চরম বিপাকে পড়েছেন।

তারে মধ্যে, সমাজসেবা অধিদপ্তরের ইউনিয়ন সমাজকর্মী পদে সবচেয়ে বেশি ৬ লাখ ৬২ হাজার ২৭০ জন আবেদনকারী আছেন। আবেদনকারীদের নিজ জেলায় সকাল ১০টা থেকে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

এছাড়া কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড, ইলেক্ট্রিসিটি জেনারেশন কোম্পানি অব বাংলাদেশ লিমিটেড, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআউডব্লিউটিএ), চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস, হিসাব মহানিয়ন্ত্রকের কার্যালয়, বাংলাদেশ ডেটা সেন্টার কোম্পানি লিমিটেড (বিডিসিসিএল), বাংলাদেশ রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা কর্তৃপক্ষ (বেপজা), বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম ইনস্টিটিউট, কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট ট্রেনিং একাডেমি, প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেডের বিভিন্ন পদে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

চাকরিপ্রার্থীদের অনেকেই জানিয়েছেন, একই দিনে ২ থেকে ৫টি পর্যন্ত পরীক্ষার তারিখ পড়েছে। এরমধ্যে একটা হয়তো ঢাকায়, অন্যটা নিজ জেলায়। এক্ষেত্রে একটার বেশি পরীক্ষা দেওয়া তাদের পক্ষে সম্ভব না।

এ বিষয়ে টঙ্গী সরকারি কলেজের সাবেক শিক্ষার্থী রাসেল শেখ বলেন, একই দিনে তার ৫টা পরীক্ষা হবে। সকাল-বিকেল মিলিয়ে সর্বোচ্চ ২টি পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন।

তিনি আরও বলেন, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ও বেপজা একই দিনে আবার একাধিক পদে পরীক্ষা নিচ্ছে। কোনো প্রতিষ্ঠান একই দিনে একাধিক পরীক্ষা নিলে আগে থেকে জানাতে পারত। তাহলে সবগুলোতে আবেদন করে টাকা নষ্ট করতেন না।

এই চাকরিপ্রার্থীর ভাষ্য, ‘একদিনে অনেকগুলো পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কারণে আমরা যেমন আবেদন করেও পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযোগ হারাচ্ছি, তেমনি যারা এখনও শিক্ষার্থী; টাকা-পয়সার টানাটানি আছে; তাদের প্রতি এটা আরও অবিচার।’ আরেক চাকরিপ্রার্থী ফারজানা ইসলাম জানান, ‘শুক্রবার সমাজসেবা অধিদপ্তর ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরে দুটো পরীক্ষা হবে। এর মধ্যে একটি আমার নিজ জেলা নরসিংদীতে, অন্যটি ঢাকায় হবে। তাই চাইলেও আমি কোনোভাবেই একটার বেশি পরীক্ষায় অংশ নিতে পারব না।’

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে দীর্ঘদিন দেশের বেশিরভাগ নিয়োগ পরীক্ষা বন্ধ ছিল। এরপর চলতি বছরের শুরু থেকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ পরীক্ষা শুরু হলেও মাঝেমধ্যেই একই দিনে একাধিক প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষা হওয়ায় আবেদন করেও অনেক প্রার্থী তাতে অংশ নিতে পারেননি। এর আগে গত বছরের অক্টোবর মাসেও একই দিনে ১৫ থেকে ১৬টি করে চাকরির পরীক্ষা নেওয়া হয়েছিল। তখন প্রতিষ্ঠানগুলোর পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, মহামারির কারণে নিয়োগ পরীক্ষা বন্ধ ছিল।

বিধি-নিষেধ উঠে যাওয়ায় সব প্রতিষ্ঠান জমে থাকা পরীক্ষাগুলো নেওয়া শুরু করেছে। তাই একইসঙ্গে এতগুলো পরীক্ষার তারিখ পড়েছে।এদিকে, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআউডব্লিউটিএ) নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ নেবেন ৪ হাজার ৭৩৭ জন।

একই দিনে এতগুলো প্রতিষ্ঠানের চাকরির পরীক্ষা না নিয়ে নিজেদের মধ্যে সমন্বয় একাধিক দিনে পরীক্ষাগুলো নেওয়া সম্ভব ছিল কি না জানতে চাইলে বিআউডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক বলেন, ‘পৃথক অর্গানাইজেশনগুলোর তো আর কোনো কো-অর্ডিনেশনের মাধ্যমে পরীক্ষা হয় না। সবার সাথে কো-অর্ডিনেশন করতে গেলে কেন্দ্রীয়ভাবে পরীক্ষাগুলো নিতে হবে। এতে আরও বড় ধরনের সমস্যার সৃষ্টি হবে।

কোভিডের কারণে অনেক নিয়োগ প্রক্রিয়া পিছিয়ে গেছে, যার কারণে খুব তাড়াতাড়ি অল্প সময়ের মধ্যে সব করতে হচ্ছে।’ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. বেনজীর আলম বলেন, ‘৯৭টি কেন্দ্রে আমাদের পরীক্ষার অনুষ্ঠিত হবে। প্রায় ৩ মাস আগে এর তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। এর পরে কারা কারা পরীক্ষাসূচি নির্ধারণ করেছে সেটা তো আমরা জানি না।’

দয়া করে এই পোষ্টটি আপনার পেজে শেয়ার করুন ...

এ জাতীয় আরো খবর..
All rights reserved © 2023 Jono Songbad | প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত